সংবাদ শিরোনামঃ
কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা! ৮৫% হাসপাতালে নেই লাইফ সাপোর্টের ব্যবস্থা! ফায়ার সার্ভিস শুধু জলন্ত বাড়িঘরের আগুন নিভানোর জন্যে যায়না।খোকা মিয়া ইসরাইল গেলে বা সম্পর্ক রাখলে জেল ও জরি’মানার বিধান রেখে কুয়েতের সংসদে আইন পাস!! চলুন এবার নিজ নিজ সামর্থ অনুযায়ী দানের “শাে অফে”ভরিয়ে দেই ফেসবুকের নিউজ ফিড। আল আকসা মসজিদে রমজানে জুম’আ-তে প্রায় ৭০ হাজার মুসল্লীর জামাত নােটিশ এয়ারপাের্ট কন্ট্রাক্ট! ইমিগ্রেশন কন্ট্রাক্ট ! এয়ারপাের্ট সাপাের্ট! বাস ভাড়া বাড়ানো হয়েছে ৬০ শতাংশ! মহাসড়ক অবরোধ করেন বিক্ষুব্ধ যাত্রীরা। ঢাকা ও দিল্লির জন্য আগামী ২৫ বছর খুব গুরুত্বপূর্ণ এবার মুখ খুললেন মাশরাফি বিন মর্তুজা
করো’না মুক্ত হলো মাশরাফির পরিবার

করো’না মুক্ত হলো মাশরাফির পরিবার

মাশরাফির পরিবার

সাবেক টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা, নড়াইল -২ আসনের সংসদ সদস্য,  করো’না থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন। প্রিয় আত্মীয়স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী, স্থানীয় মানুষ প্রিয় মানুষের সুস্থতা নিয়ে খুশি। মাশরাফির বাবা গোলাম মুর্তজা পরিবারের মুক্তির জন্য দোয়া করার জন্য সবার কাছে কৃতজ্ঞ।

করোনামুক্ত মাশরাফি পরিবারের বিল্ডিংয়ের উড়ন্ত লাল পতাকা নামানো হয়েছে। স্থানীয়দের আনাগোনায় মাশরাফির বাড়িটি পরিচিত চেহারাতে ফিরে এসেছে। করো’নার আক্র’মণে সবার অবস্থা স্থিতিশীল থাকলেও, মাশরাফির বাবা গোলাম মুর্তজা তার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

৯ দিন হাশপাতালে অবস্থান করার পরে, তিনি এবং তার পরিবার ১৮ দিনের করোনার যুদ্ধ জয়ের চার দিন পরে নড়াইল ফিরে আসেন। শারীরিক দুর্বলতার কারণে স্থানীয় ও শুভানুধ্যায়ীদের মাঝে ফিরে আসার জন্য তিন দিনের বিশ্রাম নেন গোলাম মুর্তজা । তিনি সকলের আশীর্বাদ চান যাতে পুরো পরিবারটি ভালো সময় ও খারাপ সময়ে স্থানীয়দের পাশে থাকতে পারে।

মাশরাফির বাবা গোলাম মুর্তজা বলেছেন, আল্লাহর অসীম করুণা ও মানুষের দোয়া নিয়ে আমি সুস্থ হয়েছি। আমি আগের চেয়ে ভাল আছি এবং বিশ্রামে আছি । এদিকে মাশরাফির বাড়িতে আগের মতো সকাল ও বিকেলে আত্মীয়স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভিড় রয়েছে। ছেলের অনুপস্থিতিতে গোলাম মুর্তজা শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখেন এবং আগ্রহের সাথে সবার কথা শুনেন এবং সময় দেন।

স্থানীয়রা তাদের প্রিয়জনদের মাঝে ফিরে আসতে পেরে খুশি। স্থানীয়রা জানিয়েছেন,আমরা তাদের পরিবারের সুস্থতার জন্য খুশি। উল্লেখ্য প্রথমে মাশরাফি, তারপরে তার ছোট ভাই, তারপরে তার স্ত্রী, বাবা, মা, খালা, ছোট ভাইয়ের স্ত্রী করো’নায় আক্রান্ত হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ ২০২১ সালের বাংলাদেশের ছুটির তালিকা 

আপনার মতামত জানান

শেয়ার করুনঃ

খুজুন




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

© ২০২০ | নিউজ ইবিডি ২৪ কর্তৃক সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত 
Design BY NewsTheme