সংবাদ শিরোনামঃ
আজকে স্বর্ণের দাম আরও বাড়লো। সিলেট,সুনামগঞ্জ সহ বন্যার্তদের জন্য দেড় কোটি টাকা তোলা সেই গায়ককে পুলিশের ধমক বন্যাদুর্গত সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলার অসহায় বানভাসি মানুষের পাশে বিজিবি সিলেট ও সুনামগঞ্জ প্রিয় মাঠ মিরপুর থেকেই শেষ বিদায় নিলেন মোশাররফ রুবেল। হাই ব্লাড প্রেসার কমানোর একেবারে সহজ উপায় যেসব কারণে রোজা ভেঙে যায় নর্ধারিত কিছু শর্ত লঞ্চের আগুনে : মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯, নিখোঁজ অর্ধশতাধিক ! রাতে দেরি করে ঘুমাতে যান এবং সকালে দেরি করে ঘুম থেকে ওঠেন তাদের অকালে মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি থাকে। গর্ভাবস্থায় কি করােনা টিকা নেওয়া উচিত জেনে নিন ! পাকা পেঁপে হল সবচেয়ে পুষ্টিকর ফলগুলির মধ্যে একটি। কাঁচা পেঁপেও নানা গুণে ভরপুর।
একদিনে সর্বোচ্চ করােনায় শনাক্তের রেকর্ড ১১৫২৫, মৃত্যু ১৬৩

একদিনে সর্বোচ্চ করােনায় শনাক্তের রেকর্ড ১১৫২৫, মৃত্যু ১৬৩

একদিনে সর্বোচ্চ করােনায় শনাক্তের রেকর্ড ১১৫২৫, মৃত্যু ১৬৩

টাঙ্গাইলে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে আরও ৪১৩ জনের করােনা শনাক্ত হয়েছে, শনাক্তের হার ৫৭ দশমিক ৯২ শতাংশ। জেলায় এ পর্যন্ত একদিনে এটাই সর্বোচ্চ শনাক্ত। এদিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করােনায় পাঁচ জন ও করােনার উপসর্গ নিয়ে দুই জন মারা গেছেন। টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. আবুল ফজল মােহাম্মদ শাহাবুদ্দিন দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি আরও জানায় , জেলায় নতুন শনাক্ত হয়েছে ৪১৩ জনের মধ্যে সদর উপজেলায়’ সর্বোচ্চ ২২৩ জন, মির্জাপুরে’ ৪২ জন, কালিহাতীতে’ ৩১ জন, মধুপুরে ‘২৬ জন, ঘাটাইলে’ ২৩ জন, দেলদুয়ারে’ ২১ জন, ভূয়াপুরে’ ১৩ জন, সখিপুরে’ ১০ জন , গােপালপুরে’ নয় জন, বাসাইলে ছয় জন, ধনবাড়িতে পাঁচ জন ও নাগরপুর উপজেলায় চার জনের করােনা শনাক্ত হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ শনাক্তেও সর্বোচ্চ রেকর্ড করােনা ভাইরাস।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত জেলায় করােনাভাইরাসে আক্রান্তের মােট সংখ্যা নয় হাজার ৪৪ জন। বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রােগীর সংখ্যা ৬৭৪ জন।জেলায় এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন আট হাজার ৮৯৩ জন ও মারা গেছেন ১৩৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করােনাভাইরাসে আক্রান্ত ১১ হাজার ৫২৫ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। করােনায় এক দিনে দেশে এটাই সর্বোচ্চ শনাক্ত সংখ্যা।এ ছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় করােনায় আক্রান্ত আরও ১৬৩ জন মারা গেছেন। করােনায় এক দিনে দেশে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুর সংখ্যা। এর আগে গতকাল একদিনে সর্বোচ্চ ১৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এ নিয়ে মােট মারা গেছেন ১৫ হাজার ৩৯২ জন।
গতকাল শনাক্ত হয়েছিল নয় হাজার ৯৬৪ জন।

এখন পর্যন্ত মােট শনাক্ত হয়েছে ৯ লাখ ৬৬ হাজার ৪০৬ জন।আজ মঙ্গলবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানাে হয়েছে। এতে বলা হয়, সােমবার সকাল ৮টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় অ্যান্টিজেন ও আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে ৩৬ হাজার ৬৩১টি নমুনা পরীক্ষা করে আরও ১১ হাজার ৫২৫ জনের করােনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৪৬ শতাংশ।
গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন পাঁচ হাজার ৪৩৩ জন।

মােট সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ৪৪ হাজার ৫১৫ জন। আজ বিজ্ঞপ্তিতে জানানাে হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১৬৩ জনের মধ্যে ৯৮ জন পুরুষ ও ৬৫ জন নারী। বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে তাদের মধ্যে পাঁচ জনের বয়স ২১-৩০ বছরের মধ্যে, ১১ জনের বয়স ৩১-৪০ বছরের মধ্যে, ২৭ জনের বয়স ৪১-৫০ বছরের মধ্যে, ২৯ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ও ষাটোর্ধ্ব ৯১ জন।
গত একদিনে সর্বোচ্চ ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে খুলনা বিভাগে। এর পর ঢাকা বিভাগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সিলেট বিভাগে এদিন সবচেয়ে কম দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।

আপনার মতামত জানান

শেয়ার করুনঃ

খুজুন




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

© ২০২০ | নিউজ ইবিডি ২৪ কর্তৃক সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত 
Design BY NewsTheme